জাফর ইকবালকে হত্যার যতো হুমকি

16

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং জনপ্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল ও তার স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হককে এর আগেও হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। ২০১৬ সালের ১২ অক্টোবর (বুধবার) জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নামে এই শিক্ষক দম্পতিকে মুঠোফোনের খুদে বার্তায় হত্যার হুমকি দেয়া হয়।

Zafor Yasmin

সেখানে লেখা ছিল, ‘welcome to Our new top list! Your breath may stop at anytime. ABT’। একই তারিখ রাত ২টা ৩১ মিনিটে মুহম্মদ জাফর ইকবালের মুঠোফোনেও হুমকি দিয়ে একটি খুদে বার্তা আসে। এতে লেখা ছিল, ‘Hi Unbeliever! We will strangulate you soon’।

এ ঘটনায় ১৪ অক্টোবর (শুক্রবার) বিকেলে তাঁরা সিলেট মহানগরের জালালাবাদ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। সেসময় পুলিশ জানায়, বুধবার মুহম্মদ জাফর ইকবাল ও তাঁর স্ত্রী ইয়াসমিন হককে ০১৬২৯৯৬৭৫৫১ নম্বর থেকে মুঠোফোনের খুদে বার্তার মাধ্যমে হুমকি দেয়া হয়। জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নামে এই হুমকি দেয়া হয়। এ ঘটনায় মুহম্মদ জাফর ইকবাল একটি জিডি করেছেন। এরপর তাঁদের বাসভবনে সশস্ত্র পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে। এর আগেও বেশ কয়েকবার মুহম্মদ জাফর ইকবালকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল বিভিন্ন উগ্রবাদী সংগঠন।

এর আগে, নিজের বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে উপাচার্যবিরোধী শিক্ষকদের জোট ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ শিক্ষক পরিষদ’ এর অবস্থান কর্মসূচিতে হামলার শিকার হন এই দম্পতি। ২০১৫ সালের ১২ এপ্রিলে শুরু হওয়া ওই আন্দোলনে যোগ দেওয়ায় উপাচার্য সমর্থিত ছাত্রদের হামলায় অধ্যাপক ইয়াসমিন হক মাটিতে পড়ে যান বলেও জানা যায়। সেসময় ক্ষুব্ধ জাফর ইকবাল বলেছিলেন, ‘এখানে যে ছাত্ররা শিক্ষকদের উপর হামলা চালিয়েছে, তারা আমার ছাত্র হয়ে থাকলে আমার গলায় দড়ি দিয়ে মরে যাওয়া উচিৎ।’

শুধু তাই নয়, অধ্যাপক জাফর ইকবাল সিলেটের স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের রোষানলেও পড়েছেন বহুবার। তাকে সিলেট বিদ্বেষী আখ্যা দিয়ে চাবুক মারার হুমকি দিয়েছিলেন এক প্রভাবশালী নেতা। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি যদি বড় কিছু হতাম তাহলে জাফর ইকবালকে কোর্ট পয়েটে ধরে এনে চাবুক মারতাম।’