সিলেটে বিস্ফোরণে আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা প্রধানের মৃত্যু

60

বিলেতবাংলা ৩১ মার্চ: সিলেটে জঙ্গিবিরোধী অভিযানের মধ্যে বোমা বিস্ফোরণে আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ মারা গেছেন।

সিঙ্গাপুর থেকে ফিরিয়ে আনার পর ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল তাকে।

বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১০ মিনিটে চিকিৎসকরা আজাদকে মৃত ঘোষণা করেন বলে র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান জানিয়েছেন।

সিলেটে জঙ্গি আস্তানা আতিয়া মহলে সেনা কমান্ডোদের অভিযানের মধ্যে শনিবার সন্ধ্যার পর কাছের এলাকায় বিস্ফোরণে আহত হন আজাদ। ওই বিস্ফোরণে দুই পুলিশ সদস্যসহ ছয়জন নিহত হন।

সেনা কর্মকর্তা আজাদকে প্রথমে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকা সিএমএইচে আনার পরদিন সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়।

সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল আজাদকে।  দুদিন পর চিকিৎসকদের পরামর্শেই তাকে ফিরিয়ে আনা হয় বলে মুফতি মাহমুদ জানিয়েছিলেন।

বুধবার রাত সাড়ে ৮টায় ঢাকা আনার পর ফের সিএমএইচে নেওয়া হয় তাকে।

আজাদের জন্ম ১৯৭৫ সালের ৩০ অক্টোবর চাঁপাইনবাবগঞ্জে। ৩৪তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সে ১৯৯৬ সালে ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে কমিশন লাভ করেন তিনি।

এরপর আজাদ ৬ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে আইও, অ্যাডজুটেন্ট এবং কোয়ার্টার মাস্টারসহ নানা দায়িত্ব পালন করেন।

সেনা কমান্ডো আজাদ সেনাসদর, ১ প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়ন এবং ১৯ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টে দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১১ সালের ২৬ অক্টোবর র‌্যাব-১২ এর একজন কোম্পানি কমান্ডার হিসেবে এই বাহিনীতে আসেন তিনি।

ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী আজাদকে ওই বছর শেষেই র‌্যাবের ইন্টেলিজেন্স উইংয়ে আনা হয়। দুই বছর উপ-পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালনের পর ২০১৩ সালের ৮ ডিসেম্বর ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের পরিচালক হন তিনি।

আজাদের স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।