সানু মিয়ার অকাল মৃত্যু,লন্ডনে শোকের ছায়া: প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন মহলের শোক

41

বিলেতবাংলা ডেস্ক,২২ নভেম্বর: যুক্তরাজ্য সেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক, সমাজকমী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মিয়া আখতার হোসেন  সানু মিয়া আর নেই। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। ২২ নভেম্বর, সোমবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১১.০০টায় ঢাকাস্থ টুইন টাওয়ারে তিনি শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন।

সানু মিয়া বিভিন্ন সামাজিক কাজে বেশিরভাগ সময় বাংলাদেশে ব্যয় করতেন।তিনি সবশেষ গত ১ নভেম্বর লন্ডন এসেছিলেন এবং ১৭ নভেম্বর আবার বাংলাদেশে যান। বাংলাদেশে তার গ্রামের বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসী গ্রামে।

 মৃত্যুকালে তিনি মা, স্ত্রী পারভীন বেগম, ২ ছেলে, ১মেয়ে সোনিয়া, নাতি নাতনী সহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫০ বছর।সানু মিয়ার মরদেহ ঢাকাস্থ বারডেম হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আগামীকাল ২৩ নভেম্বর বুধবার সানু মিয়ার মা, স্ত্রী, ভাই, সন্তানরা বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবেন।বুধবার ২৩ নভেম্বর বাদ আসর বায়তুল মোকাররম মসজিদে তার প্রথম নামাজে জানাজা, বাদ এশা শান্তিনগর টুইন টাওয়ারে ২য় নামাজে জানাজা এবং ২৪ নভেম্বর, বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসী জামে মসজিদে নামাজে জানাজা শেষে শ্রীরামসীর পারিবারিক গোরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে।

 সানু মিয়া ১৯৮৬ সালের দিকে যুক্তরাজ্যের যুবসমাজকে ঐক্যবদ্ধ করতে যুক্তরাজ্য শাপলা ইয়ুথ ফোস গঠণ করেন এবং দীর্ঘদিন এই সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন,যুক্তরাজ্য  ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদকের ও দায়িত্ব পালন করেন।এছাড়াও বৃটেনে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে  সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন।

১৯৮৬ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনা লন্ডনে থাকাকালীন সানু মিয়া একনিষ্টভাবে রাজনৈতিক কাজে যুক্ত ছিলেন।

উল্লেখ্য,একজন সমাজকমী, দক্ষ সংগঠক হিসেবে তার পরিচিতি ছিলো ব্যাপক।যুক্তরাজ্যের সাংস্কৃতিক অঙ্গনেও সানু মিয়া ছিলেন সুপরিচিত ব্যক্তিত্ব।

প্রধানমন্ত্রীর শোক

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাজ্য আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিয়া আক্তার হোসেন ছানুর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

আজ মঙ্গলবার এক শোক বিবৃতিতে তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আক্তার হোসেন মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানী ঢাকার বারডেম হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসী গ্রামের বাসিন্দা ছানু মিয়া ক্রীড়া ও যুব সংগঠক ছিলেন।

এছাড়াও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এক শোক বিবৃতিতে যুক্তরাজ্য আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন ছানুর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন।

সানু মিয়ার মৃত্যুতে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের শোক

সানু মিয়ার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ।যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক এক বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করে বলেন, সানু মিয়া তার জীবদ্দশায় বাঙালির প্রত্যেকটি আন্দোলনে সক্রিয় ছিলেন। প্রবাসী বাঙালিদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া আদায়েও তিনি ছিলেন সোচ্চার।বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন সৈনিক হিসেবে কাজ করেছেন সারাজীবন।জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন, অগ্রগতিতেও তিনি যথাসাধ্য শামিল ছিলেন। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সানু মিয়ার শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন ও তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের শোক

বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাওসার ও সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথ এমপি সানু মিয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তারা সানু মিয়ার শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতিও গভীর সমবেদনা জানান।

শোক প্রকাশ করেছেন লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরী,সাপ্তাহিক পত্রিকার প্রধান সম্পাদক বেলাল আহমেদ, সাংবাদিক নজরুল ইসলাম বাসন,  মানবাধিকার কমী শাহাবুদ্দিন আহমদ বেলাল, ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য আনসার আহমদ উল্লাহ, কবি হামিদ মোহাম্মদ ও মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল কামাল।

এছাড়াও শোক প্রকাশ করেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব জালাল উদ্দিন, সহ সভাপতি হরমুজ আলী, যুগ্ম সম্পাদক নঈম উদ্দিন রিয়াজ, মারুফ আহমদ চৌধুরী, আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী,দপ্তর সম্পাদক শাহ শামীম আহমদ, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক তারিফ আহমদ, শিল্পও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক আসম মিসবাহ, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল হক লালা মিয়া,সাধারণ সম্পাদক আলতাফুর রহমান মোজাহিদ, যুক্তরাজ্য সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সায়েদ আহমদ সাদ, যুক্তরাজ্য যুবলীগের সভাপতি ফখরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ খান, যুগ্ম সম্পাদক জামাল আহমদ খান, জুবায়ের আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল খান, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সারওয়ার কবির প্রমূখ।