ভারত-পাকিস্তানের যুদ্ধ-প্রস্তুতি: সীমান্ত ঘেষে উড়ছে যুদ্ধ বিমান

421

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ২৫ সেপ্টেম্বর: : জম্মু-কাশ্মীরের উরিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর একটি সদর দপ্তরে সন্ত্রাসী হামলার পরিপ্রেক্ষিতে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা পৌঁছেছে চরম পর্যায়ে। উরির কাছের পাক-ভারত সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখায় যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েছে দুই দেশ। সীমান্তবর্তী এলাকায় সামরিক উপস্থিতি বাড়িয়েছে উভয় দেশ। প্রায়ই সীমান্ত ঘেষে উড়ে যাচ্ছে উভয় দেশের যুদ্ধ বিমান।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর ভোরে জম্মু-কাশ্মীরের উত্তরাঞ্চলের সীমান্তবর্তী উরি এলাকার সেনা ব্রিগেডের সদর দপ্তরে হামলা হয়। এতে ১৮ সেনা ও চার হামলাকারী নিহত হন। এ ছাড়া ওই ঘটনায় আহত ৩৫ সেনাকে সামরিক বাহিনীর হেলিকপ্টারে করে সরিয়ে নেওয়া হয়। হামলার পরপরই এর জন্য পাকিস্তানকে দায়ী করে ভারত। আর এই হামলার কড়া জবাব দিতে চান ভারতীয় সেনারা।

ভারতের সংবাদমাধ্যম ‘ইন্ডিয়া টুডে’ আজ রোববার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, লাইন অব কন্ট্রোল সীমান্তের কাছের এলাকায় সেনা ও বিমানবাহিনীর উপস্থিতি বাড়িয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। কোনো পক্ষ প্রথম হামলা চালালে জবাব দিতে প্রস্তুত অপরপক্ষও।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ভারতীয় সেনাবাহিনীর পদক্ষেপের কথা প্রকাশিত হওয়ার পর নিয়মিত বিরতিতে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের আকাশে উড়ছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান।

ভারত সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের সূত্রের বরাত দিয়ে ইন্ডিয়া টুডে জানায়, উরি হামলার শক্ত প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে মোদি সরকার। পাকিস্তানের একের পর এক সন্ত্রাসী হামলায় হতাশ হয়ে পড়া ভারতীয় জনগণও অপেক্ষা করছে সরকারের পদক্ষেপের।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ভারত-পাকিস্তান দুই দেশের মধ্যেই উত্তেজনা ছড়িয়েছে। সম্প্রতি ইসলামাবাদ ও লাহোর শহরের সড়কে যুদ্ধবিমান নামানোর পরীক্ষা চালানো হয়েছে। এদিকে ভারত তাঁদের সমরাস্ত্রের ভাণ্ডারে নতুন যুক্ত হওয়া এমআইসিএ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার পূর্ব সেক্টরে ভারতীয় বিমানবাহিনীর টাইগার স্কোয়াড্রন মিরেজ-২০০০ যুদ্ধবিমানের মাধ্যমে এমআইসিএ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়।