চীনে যাত্রা শুরু করলো বহুল আলোচিত এলিভেটর বাস

103

বিলেতবাংলা ডেস্ক, ১০ সেপ্টেম্বর: সবচেয়ে জনবহুল দেশ চীনে শুরু হলো বহুল আলোচিত এলিভেটর বাসের যাত্রা। কিছুটা ট্রাম, কিছুটা বাস! ২২ মিটার লম্বা, ৭.৮ মিটার চওড়া ও ৪.৮ মিটার উচ্চতার বাস TEB-1-এ একসঙ্গে ৩০০ জন যাত্রী সওয়ার হতে পারে। উত্তর চিনের হেবেই প্রভিন্সে কুইনহুয়াংডাও শহরে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হয় বাসটিকে। প্রথম জার্নিতেই সাফল্য। পরবর্তীকালে বাসটির যাত্রীধারণ ক্ষমতা বাড়িয়ে ১২০০ করার পরিকল্পনা রয়েছে। ইতিমধ্যেই ব্রাজিল, ফ্রান্স, ইন্দোনেশিয়া এমনকী ভারত সরকারও এমন বাস তৈরির ব্যাপারে উত্সাহ দেখিয়েছে বলে নির্মাণকারী সংস্থার দাবি। যে হারে দেশের জনসংখ্যা বাড়ছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতে দেশের রাস্তায় হয়তো দেখাই যেতে পারে এরকম বাস!

চীনের দেশের জনসংখ্যা ১৩৫ কোটি ৭০ লক্ষ, এবং যে দেশ ট্রাফিক জ্যামের জন্য কুখ্যাত, সেই চীনবাসীকে যানজটের হাত থেকে মুক্তি দিতে অভিনব এলিভেটর বাস উপহার দিতে চলেছে দেশটির প্রশাসন৷ সমস্ত কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরই রাস্তায় নামবে এলিভেটর বাসটি৷ চীনের প্রযুক্তিবিদরা জানিয়েছেন, ট্রানজিট এলিভেটেড বাস বা সংক্ষেপে টিইবি নামে বাসটি দেখতে হবে একটি সাবওয়ের মতো৷ এই চলন্ত বাসের তলা দিয়ে অনায়াসে গাড়ি যেতে পারবে৷ এটিও চাইলে অন্য গাড়ির উপর দিয়ে যেতে পারবে গাড়ির কোন ক্ষতি না করে৷ এলিভেটর বাসটি সাবওয়ের মতো দেখতে হলেও সাবওয়ে নির্মাণের থেকে এর খরচ অনেক কম, মাত্র এক-পঞ্চমাংশ৷ এলিভেটর বাসটিতে ১২০০ জন যাত্রী ধরবে৷ চলতি বছরের শেষ দিকে হেবেই প্রদেশের কিনহুয়াংডাও শহরে এই বাসটিকে প্রথম চালানোর পরিকল্পনা নিয়েছে চীন প্রশাসন৷ তবে এমন বাস তৈরির পরিকল্পনা নতুন নয় চীনে৷

এর আগে ২০১০ সালেও এমন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়, তবে সেবারও বিভিন্ন কারণে বিশ বাঁও জলে চলে যায় বাস নির্মাণের পরিকল্পনা৷ এলিভেটর বাসটির একটি মডেল সম্প্রতি বেজিংয়ে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হাই-টেক এক্সপোতে দেখানো হয়৷ সঙ্গে সঙ্গেই শোরগোল পড়ে যায় জনসাধারণের মধ্যে৷