সংস্কৃতিকর্মী আবু বকর মোহাম্মদ হানিফ আর নেই

1500

বিলেতবাংলা ডেস্ক, ২ সেপ্টেম্বর:  লেখক ও সংস্কৃতিকর্মী আবু বকর মোহাম্মদ হানিফ ১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে একটি হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেছেন। সম্প্রতি তিনি দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যানসারে  আক্রান্ত হয়েছিলেন। ক্যানসার ধরা পড়ার পর তিনি চিকিতসা নিচ্ছিলেন।  অল্পদিনের মধ্যে  তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে এবংচিকিতসকদের  সব চেষ্টা ব্যর্থ করে আবু বকর মোহাম্মদ হানিফ পরলোকগমণ করেন।  তাঁর বয়স আনুমানিক ৫৪ বছর।

আবু বকর হানিফের পরলোকগমণের সংবাদ স্যোসাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে দেশে বিদেশে  তাঁর বন্ধুবান্ধব,সংস্কৃতিকর্মী,লেখকরা শোক প্রকাশসহ বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করতে থাকেন।

উল্লেখ্য,আবু বকর হানিফ আশির দশকে সিলেটের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নির্বিরোধ কর্মী,গল্পকার, লেখক,চিত্রকর ও নাট্য শিল্পী  হিশেবে সমধিক পরিচিত হয়ে ওঠেছিলেন। ১৯৭৬ সালে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী সিলেট শাখা গঠিত হলে হানিফ শাখার অন্যতম সদস্য হন এবং অল্পদিনেই জনপ্রিয় কর্মী হিশেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। সাপ্তাহিক যুগভেরীর ছোটদের সাহিত্যপাতা শাপলারমেলার কর্মী, লেখক ও চিত্রকর ছিলেন। তাঁর হস্তাক্ষরে সুশোভিত ‘শাপলার মেলা‘ দেয়াল পত্রিকা ও শাপলার মেলার পাতা অলংকৃত হত। সোভিয়েত ইউনিয়নের ঢাকা দূতাবাস থেকে প্রকাশিত ‘উদয়ন‘এর বিভিন্ন চিত্র দেয়াল পত্রিকায় পেস্টিং  করে এক নতুন যোজনার সংমিশ্রন ঘটাতেন হানিফ। ন¤্র-ভদ্র ব্যবহারের মানুষ হিশেবে সবার প্রিয়ভাজন ছিলেন সিলেটের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে। সিলেটে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা  শেষে হানিফ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভূগোল শাস্ত্রে অধ্যয়ন করেন। সে সময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্য শিক্ষক সেলিম আল দীনের ভক্ত হয়ে ওঠেন হানিফ এবং নাট্যচর্চা, নাট্য আন্দোলন ও অভিনয়ে জড়িয়ে পড়েন।  ১৯৮০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষায় গমণ করেন। উইনকিনসন বিশ্ববিদ্যালয় ও পরে মেডিস্ট কলেজ ইউনির্ভাসিটি থেকে কম্পিউটার সাইন্সে  পোস্ট গ্রেজুয়েট শেষে সেখানে স্থায়ী হন। এক পর্যায়ে নব্বই দশকে  দেশে স্থায়ী হওয়ার জন্য চলে আসেন। দরগাগেইটে ‘এক্সপার্ট কম্পিউটার‘ নামে একটি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। কিন্তু দেশের রাজনৈতিক বৈরী পরিবেশের জন্য ঠিকতে না পেরে হতোদ্যম হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যান।কিন্তু সাহিত্য ও সংস্কৃতিচর্চা ছাড়েননি। হানিফ  আশির দশকে পাঠক প্রিয় গল্প সংকলন ‘মাস্তুল‘ সম্পাদনা করেন।

সিলেটের জিন্দাবাজারে সনামধন্য ‘হানিফ রেডিও হাউস‘ তাঁর নামে গড়া পারিবারিক ব্যবসাটির কর্ণধার ছিলেন তাঁর পিতা শফিকুর রহমান। সিলেটের বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী শিল্পপতি এম মুহিবুর রহমান ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার প্রাক্তণ চেয়ারম্যান এম তৈয়বুর রহমান হলেন  আবু বকর মোহাম্মদ হানিফের চাচা। সিলেট শহরের আম্বরখানায় বিমানবন্দর সড়কের পাশে তাদের বাংলো প্যটার্নের  বাড়িটি ছিল নজরকাড়া। তাদের পারিবারিক বাড়ি বর্তমান কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার পোন্নাছোগাম।

পারিবারিক জীবনে আবু বকর মোহাম্মদ হানিফের দুকন্যা। বড়মেয়ে শোভা হানিফ চিকিতসা শাস্ত্রে ৪র্থ বর্ষে অধ্যয়নরত। ছোটমেয়ে ফারাহ হানিফ অনার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যে ‘ প্রবাসী বাঙালি কমিউনিটির সামাজিক অবস্থান‘ নিয়ে রিচার্সে নিয়োজিত। সহধর্মিণী ডেইজি হানিফ।  মিশিগানের বটেমির হিলে স্থায়ীভাবে তাদের  বসবাস।