পিটিশনের ফের শুনানী কাল: মুখোমুখি সেবায়েত পংকজ-ইসকন

234

বিলেতবাংলা ডেস্ক,৭ আগস্ট:: দেবোত্তর সম্পত্তি তারাপুর নিয়ে এবার মুখোমুখি সেবায়েত পংকজ গুপ্ত ও আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ ইসকন।  রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা ইসকনের দাখিল করা পিটিশনের শুনানী করে পরবর্তী শুনানীর তারিখ নির্ধারণ করেন আগামীকাল সোমবার। তারাপুরের সেবায়েত পংকজ গুপ্ত এই তথ্য জানান।

এ ব্যাপারে কথা বলতে ইসকনের আইন বিষয়ক মুখপাত্র নিধি কৃষ্ণ দাসকে দফায় দফায় ফোন করলেও তিনি ফোন ধরেননি। তবে নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায় গতকাল উচ্চ আদালতে উভয় পক্ষই আইনজীবিসহ উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৯ জানুয়ারি সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের এক রায়ে প্রতারণার মাধ্যমে দখল করা তারাপুর চা বাগান থেকে রায়ের ৬ মাসের মধ্যে রাগীব আলীর অবৈধ দখল উচ্ছেদের নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশনা অনুসারে গত ১৫ মে বাগানটির মূল ও আদি সেবায়েত ডাঃ পঙ্কজ কুমার গুপ্তকে বাগানের খোলা জায়গা ও মন্দির বুঝিয়ে দেন স্থানীয় প্রশাসন। তবে রাগীব আলীর অবৈধ বাণিজ্যিক স্থাপনা ও তিন শতাধিক আবাসিক স্থাপনা এখনো বর্তমান। এমতাবস্থায় জেলা প্রশাসন দ্বিতীয় দফায় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এতে আগামি ১৩ আগস্টের মধ্যে দখল না-ছাড়লে সিলেটের তারাপুর চা-বাগানে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনার গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। অন্যথায় আগামী ১৪ আগস্ট ২০১৬ তারিখ হতে সকল গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।

এদিকে উচ্চ আদালতের রায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে দেবোত্তর সম্পত্তি তারাপুরের স্থাপনার ব্যাপারে পর্যালোচনা করতে গত ৪ আগস্ট ঢাকাস্থ অর্থমন্ত্রীর বাসায় বৈঠক করেন সিলেটের আওয়ামীলীগ নেতারা। অবৈধ দখলদার রাগীব আলীর অবেধ স্থাপনা উচ্ছেদ নিয়ে যখন তৎপরতা চলছে এমন সময়ে তারাপুরের দেবতা শ্রী শ্রী রাধা কৃষ্ণ জীউর ও তার দেবোত্তর সম্পত্তির দাবি তুলে উচ্চ আদালতে পিটিশন দাখিল করে। এতে সেবায়েত পংকজ ও ইসকন অনেকটা মুখোমুখি হয়ে পড়ে।