বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরের মানুষের সুখ দুঃখের অংশিদার হয়ে বেঁচে থাকতে চাই- শফিকুর রহমান চৌধুরী

220

লন্ডন: বালাগঞ্জ বিশ্বনাথ ওসমানীনগর আমার হৃদয়ে। এ এলাকার মানুষ আমার আত্মার আত্মীয়। আমি আমার এলাকার মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি সবসময়। বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরের মানুষের ভালোবাসার ঝণ শোধ করবার নয়। এ এলাকার মানুষের ভোটে আমি ২০০৮ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছি। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরের মানুষের সুখ দুঃখে তাদের পাশে আছি ভবিষ্যতেও থাকবো এবং তাদের ভালবাসার মাঝে বেঁচে থাকতে চাই। এমন্তব্য বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাবেক সেক্রেটারী সিলেট জেলা আওয়ামীলগের সাধারন সম্পাদক ও সিলেট-২ আসনের সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরীর।

১৫ ফেব্রুয়ারি, সোমবার পূর্ব লন্ডনের ওয়াটারলিলি ব্যানকুয়েটিং হলে প্রবাসী বিশ্বনাথ বালাগঞ্জ ওসমানীনগরবাসীর  আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। শফিকুর রহমান চৌধুরী আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন কর্মী হিসেবে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সিলেটের সর্বত্র আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগ আজ সারাদেশের মতো সিলেটেও সুসংগঠিত। দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্ব দরবারে  মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছে। বাংলাদেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমরা বর্তমানে বিদেশে খাদ্য রপ্তানী করছি। শিক্ষা, চিকিৎসা শিল্প, বাণিজ্য সর্বক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

দেশের সব জায়গায় উন্নয়ন হচ্ছে। শফিকুর রহমান চৌধুরী আরো বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ় নেতৃত্বের কারণে যুদ্ধাপরাধী মানবতা বিরুধী অপরাধীদের বিচার হয়েছে এবং হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার বিচার হয়েছে। দেশে এখন আর বিচারহীনতার সংস্কৃতি নেই।

বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাজী আফতাব আলীর সভাপতিত্বে ও যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক শাহ শামীম আহমদ এবং জনসংযোগ সম্পাদক রবিন পালের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি, জননেতা সুলতান মাহমুদ শরীফ। তিনি বলেন সুখী, সমৃদ্ধ, আধুনিক, অসাম্প্রদায়িক, উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে। যুক্তরাজ্যেও বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিশ্বনাথ-বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরের শতশত প্রবাসী মতবিনিময় সভায় যোগ দেন।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা পরিষদের সভাপতি শামসুদ্দিন খান, জিএলএ মেম্বার মোরাদ কোরেশী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ডেপুটি স্পীকার রাজীব আহমদ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লৗগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, সহ সভাপতি শাহ আজিজুর রহমান, বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি হরমুজ আলী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক লীডার হেলাল আব্বাস, সাবেক কাউন্সিলার আকিকুর রহমান, সাবেক কাউন্সিলার হেলাল রহমান, ব্রিকলেন জামে মসজিদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ মিয়া, বিশ্বনাথ এডুকেশন ট্রাস্টের সাবেক সভাপতি একেএম সেলিম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন, মতচ্ছির খান, বালাগঞ্জ এডুকেশন ট্রাস্টের সাবেক সভাপতি আনহার মিয়া, গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান পীর মজনু মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লৗগের প্রবাস কল্যাণ সম্পাদক আনসারুল হক, যুবও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক তারিফ আহমদ, মানবাধিকার সম্পাদক সারব আলি, ইমিগ্রেশন সম্পাদক এডভোকেট এম এ করিম, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খালেদা কোরেশী, সাধারণ সম্পাদক মুসলিমা শামস বন্নি, সহ সভাপতি হোসেন আরা মতিন, মাসুদ আহমদ প্রমূখ।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বালাগঞ্জ সমিতির সাবেক সভাপতি নুরুল হক নূর আলী, কভেন্ট্রি আওয়ামী লীগের সভাপতি মকদ্দুস আলী, উইরাল আওয়ামী লীগের সভাপতি মোফাজ্জল হোহেস মধু, কার্ডিফ আওয়ামী লীগ নেতা কাজী শাহজাহান, নিউহাম আওয়ামী লীগের সভাপতি মোবারক আলী, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল হক লালা মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আলতাফুর রহমান মোজাহিদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক ফজরুল হক এনাম,সাংগঠনিক সম্পাদক ফজরুল হক এনাম, মানবাধিকার সম্পাদক শায়েক আহমদ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক জিলু,শ্রমিকলীগের আহবায়ক শামীম আহমদ,যুগ্ম আহবায়ক আনোয়ারুল ইসলাম,ইকবাল হুসেন, যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মতব্বির হোসেন চুনু, সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী খান সোহেল, লুটন যুবলীগের সভপতি মজনু মিয়া, যুবলীগ নেতা সারদুল মিয়া, যুক্তরাজ্য সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সায়েদ আহমদ সাদ, সাধারণ সম্পাদক মিয়া আকতার হুসেন সানু, ওসমানীনগর যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি এম আম্বিয়া, যুক্তরাজ্য তরুণলীগের সভাপতি জুবায়ের আহমদ, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সারওয়ার কবির, যুগ্ম সম্পাদক ফখরুল ইসলাম জামাল প্রমুখ।