নারায়ণগঞ্জের সেই স্কুল কমিটি বাতিল, শিক্ষক পুনর্বহাল

73

 

বিলেতবাংলা ডেস্ক, ১৯ মে: শিক্ষককে মারধর ও কান ধরে উঠ-বস করানোর ঘটনা নিয়ে সারাদেশে প্রতিবাদের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের স্কুল পরিচালনা পর্ষদ বাতিল করেছে সরকার;অবৈধ ঘোষণা করা হয়েছে ওই শিক্ষককে বরখাস্তের আদেশ।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বৃহস্পতিবার ঢাকায় এ বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান,মাউশি’র প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তিনি বলেন,“ওই শিক্ষককে বরখাস্তের আদেশ অবৈধভাবে দেওয়া হয়েছে। ওই আদেশ বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

পরিচালনা পর্ষদ ‘এজেন্ডাবহির্ভূতভাবে’ ওই শিক্ষককে বরখাস্ত করেছিল জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “স্কুল কমিটিও বাতিল করা হয়েছে।”

আপাতত নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে স্কুল পর্ষদ পরিচালনার জন্য একটি কমিটি করে দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

নাহিদ বলেন, “সভ্য সমাজে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা ন্যক্কারজনক।… তিনি পদে বহাল আছেন এবং দায়িত্ব পালন করে যাবেন।”

ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে গত শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষককে একদল লোক মারধর করে। পরে তাকে কান ধরিয়ে উঠ-বস করান স্থানীয় সাংসদ সেলিম ওসমান।

দেশজুড়ে ওই ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের বিচার দাবির মধ্যেই মঙ্গলবার সেই শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানসহ জড়িত অন্যদের ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানায় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন। ওই শিক্ষককে চাকরিতে পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে ১৪ দলের পক্ষ থেকে বলা হয়, ওই কাজ করে সেলিম ওসমান সাংসদ পদের মর্যাদা ক্ষুণ্ন করেছেন।

ওই ঘটনায় সাংসদ সেলিম ওসমানসহ যাদের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ উঠেছে, তাদের বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে বুধবার রুল জারি করে হাই কোর্ট।