মুক্তচিন্তার বুদ্ধিজীবী ও ব্লগারদের হত্যার পেছনে জামায়াত ও পাকিস্তানী গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই –যুক্তরাজ্য ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি

89

বিলেতবাংলা ডেস্ক, ৪ মে, লন্ডনঃ ২৪ বছর আগে শহীদজননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে ‘৭১ এর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং জামাত-শিবির চক্রের মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক রাজনীতি নিষিদ্ধকরণের  দাবীতে যে অভূতপূর্ব নাগরিক আন্দোলনের সূচনা হয়েছিল তার আংশিক বিজয়  হয়েছে বিশেষ ট্রাইবুন্যালে নেতৃস্থানীয় ২৬ যুদ্ধাপরাধীর বিচার ও শাস্তির মাধ্যমে। একাত্তরের ঘাতক দালাল  নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখা আয়োজিত শহীদজননীর ৮৫তম জন্ম দিনের আলোচনা সভায় বক্তারা একথা বলেন। বক্তারা বলেন আন্তরজাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যালে একাত্তরের প্রধান প্রধান হত্যাকারীদের বিচার হলেও দল হিসেবে এখনও জামাতে ইসলামী, নেজামে ইসলাম, মুসলীমলীগ কিংবা তাদের ঘাতক বাহিনী রাজাকার, আলবদর, আলশামস শান্তিকমিটির বিচার এখনও আরম্ভ হয়নি।যে পাকিস্থানী সামরিক জান্তা স্মরণকালের ইতিহাসের নৃশংসতম গণহত্যাযজ্ঞ আরম্ভ করেছিল এবং এর প্রধান ভূমিকায় ছিল –যাদের বিচারের জন্য বঙ্গবন্ধুর সরকার বিশেষ ভাবে আন্তরজাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যাল আইন ১৯৭৩‘ প্রণয়ন করেছিলেন তাদের বিচারও আরম্ভ হয়নি। যুদ্ধাপরাধীদের চলমান বিচার বানচাল এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের মহাজোট সরকারকে উৎখাতের জন্য জামাতে ইসলামী এবং তাদের সহযোগীরা পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা্ আইএসআই-এর সহযোগীতায় দেশে বিদেশে যে বহুমাত্রিক চক্রান্ত করছে তার অন্যতম  অভিব্যক্তি হচ্ছে মুক্তচিন্তার বুদ্ধিজীবি  ও তরুন ব্লগারদের চলমান হত্যাকান্ড। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীও এই সব হত্যাকান্ডের জন্য জামাত বিএনপি জোটকে দায়ী করেছেন।

 

গতকাল ৩মে বিকেলে ইষ্টলন্ডনের মন্টিফিউরী সেন্টারে একাত্তরের ঘাতক দালাল  নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার সহসভাপতি সৈয়দ এনামুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সহসাধারন সম্পাদক জামাল আহমদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, ঘাতক দালাল  নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য আনসার আহমেদ উল্লাহ। আলোচনায় অংশ নেন ইউকে নির্মূল কমিটির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী,যুক্তরাজ্য ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কোষাধ্যক্ষ শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, সাংবাদিক শাহাব উদ্দিন আহমদ বেলাল, যুক্তরাজ্য ,যুক্তরাজ্য ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাবেক সাধারন সম্পাদক সৈয়দা নাজনিন সুলতানা শিখা,  ,যুক্তরাজ্য ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রুবী হক, সদস্য আনজুমান আরা অঞ্জু, সিনথিয়া, কামরুল হাসান তোষার, যুক্তরাজ্য তরুণ লীগের সভাপতি জোবায়ের আহমদ, ওয়ালীউর রহমান, কমউনিটি নেতা আঙ্গুর আলী, মজুমদার আলী, আলম হোসেন প্রমুখ।

 

অনুষ্ঠানের শুরুতে সদ্য প্রয়াত যুক্তরাজ্য  ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ বিবি চৌধুরীর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাজানিয়ে একমিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এখানে উল্লেখ্য যে ডাঃ বিবি চৌধুরী ১মে ঢাকায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। সংগঠনের সদস্য ও অতিথিদের সাথে নিয়ে আনুষ্টানিক ভাবে জন্মদিনের কেক প্রধান অতিথি সুলতান মাহমুদ শরীফ।