প্রিয়তির স্বপ্নের ফটোশুট

92

 

‘মামি রিটার্নস’ ছবির একটি চরিত্রে ফটোশুট করেছেন প্রিয়তিআয়ারল্যান্ড থেকে প্রিয়তিই জানালেন খবরটা। ‘আপনাদের প্রিয়তি এখন এক্সপেনসিভ (ব্যয়বহুল) মডেলদের দলে ঢুকে গেল।’ কথাটা বলেই একটা হাসির ইমো পাঠালেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। তারপর যোগাযোগ করা হলে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আয়ারল্যান্ডপ্রবাসী মডেল ও অভিনেত্রী মাকসুদা আকতার প্রিয়তি বললেন, ‘দ্য মামি রিটার্নস’ ছবির একটি চরিত্রের আদলে ফটোশুট করছেন তিনি। আর এর চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ খবরটা দিলেন প্রিয়তি নিজের মুখে। বললেন, ‘আন্তর্জাতিক মডেলদের স্বপ্নই থাকে জন মোরানের সেটে তাঁর ফটোগ্রাফিতে মডেল হওয়ার। আমার স্বপ্নও এর ব্যতিক্রম ছিল না। শেষ পর্যন্ত স্বপ্নটি পূরণ হলো।’

 

জন মোরান প্রসঙ্গে প্রিয়তি জানিয়েছেন, চলচ্চিত্রের সেট ডিজাইনার হিসেবে ইউরোপ, আমেরিকায় অনেক জনপ্রিয় এই মানুষটি। চলচ্চিত্র বা টেলিভিশন চ্যানেলের ব্যয়বহুল সেটগুলোর তিনি ডিজাইন করেন। ফটোগ্রাফি করেন শখে। কিন্তু যদি কখনো করেন, তবে তার জন্য পেয়ে যান বিশ্বসেরার তকমা।

 

‘দ্য মামি রিটার্নস’-এর একটি চরিত্রের মডেল হওয়া প্রসঙ্গে প্রিয়তি বলেছেন, ‘ওই চলচ্চিত্রের একটি চরিত্রের কপিরাইট এখন মোরানের। কপিরাইট কিনে নিয়েছেন তিনি। আর এরপর নতুন করে সেট ও মডেল দিয়ে ফটোশুট করেছেন। যার মডেল আমি।’ প্রিয়তি বলেন, ‘মডেল হতে গিয়ে আমার পুরো শরীরই রং করতে হয়েছে। এ কাজটি করেছেন যুক্তরাজ্যের তারকা মেকআপ অ্যান্ড বডি পেইন্টিং শিল্পী মেরি মারফি।’

 

প্রিয়তি আরও জানিয়েছেন, এই ছবিগুলো করা হয়েছেন প্রচারের জন্যই। আর এই কাজগুলো প্রচারিত হবে ইউরোপ ও আমেরিকার বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে।